Small Business idea

প্রতি মাসে ৫০,০০০ – ৬০,০০০ টাকা উপার্জন করুন শুধুমাত্র একটি ছোট্ট মেশিনের সাহায্যে! – small business ideas

বর্তমান সময়ে স্মার্টফোন রয়েছে প্রায় প্রত্যেকের হাতে এবং আমরা প্রত্যেকেই জানি যে এই স্মার্টফোনের গুরুত্ব আমাদের কাছে অপরিসীম। কোন গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট হোক বা কোন গুরুত্বপূর্ণ ছবি প্রায় সব ধরনের পার্সোনাল ডাটা আমরা আমাদের স্মার্টফোনে সেভ করেই থাকি। এজন্য আমাদের প্রত্যেকেই আমাদের স্মার্টফোন কোন তরল পদার্থ থেকে সর্বদা দূরে রাখি। কারন আমরা প্রত্যেকেই জানি আমাদের স্মার্টফোনটি কোনভাবে জল বা অন্য কিছু তরল পদার্থের সংস্পর্শে এলে তা অকেজো হতে পারে।

আর যদি ঠিক এমনটাই ঘটে সেক্ষেত্রে সেক্ষেত্রে হয়তো আমাদের স্মার্টফোন রিপেয়ারিং এর জন্য নিয়ে যেতে হয় কোন সার্ভিস সেন্টারে। তারপর মোবাইল রিপেয়ারিং সম্পূর্ণ হলে আবারও আপনি পুনরায় আপনার স্মার্টফোন ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু এই পদ্ধতিতে লাগে বেশ অনেকটা সময় ও খরচ হয়ে যায় অনেকগুলো টাকা। এখন আমরা যদি বলি এই পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হতে লাগবে মাত্র কিছুটা সময় এবং আপনি শুধুমাত্র ১০০-১৫০ টাকা খরচ করেই আপনার স্মার্টফোন পুনরায় আগের মত কার্যকর করতে পারেন। আর এখনই আপনার ভাবা উচিত এই পদ্ধতি অবলম্বন করে আপনি যদি কোন ব্যবসা গড়ে তুলতে পারেন আপনি অতি সহজেই প্রতিমাসে ৪০,০০০-৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারেন।

বর্তমান সময়ে ভারতীয় জনসংখ্যার প্রায় ৭০% পর্যন্ত মানুষ স্মার্ট ফোন এর ব্যবহার করে থাকেন। আর গবেষকদের তথ্য অনুযায়ী উঠে আসে যে প্রায় প্রত্যেকদিন সর্বনিম্ন 1 লক্ষ্যেরও অধিক স্মার্টফোন জল বা অন্য কোন তরল পদার্থের পড়ার কারণে নষ্ট হয়ে থাকে। এখন আপনি যদি আপনার লোকালিটির চারিপাশ থেকে প্রত্যেকদিন সর্বনিম্ন ১০-১৫ জন গ্রাহক পান, এক্ষেত্রে আপনিও এই ব্যবসা করে মোটা অংকের টাকা উপার্জন করতে পারেন। অবশ্য এই ব্যবসা করতে হলে আপনাকে কোন ধরনের মেশিন কিনতে হবে, মেশিন কিনতে কত টাকা ব্যয় করতে হবে, কিভাবে এই মেশিনের সাহায্যে যে কোন স্মার্টফোন মেরামত করতে পারবেন, এই ব্যবসা করে আপনি কত টাকা লাভ করতে পারবেন ও এছাড়াও আরো অন্যান্য কোন ধরনের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র আপনার প্রয়োজনে আসবে এই সব ধরনের তথ্যের সাথে এখন বিস্তারিতভাবে আলোচনা করে নেব।

প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র

প্রয়োজনীয় মেশিন: এই ব্যবসার জন্য আপনার প্রয়োজন পড়বে ন্যানো কোটিং মেশিনের, এই অত্যাধুনিক মেশিনটি প্রতি ৫ মিনিটে একটি স্মার্টফোন কঠিন করতে সক্ষম। অর্থাৎ আপনি এই মেশিনের দ্বারা প্রতি ঘন্টায় ১২ টি এবং সারা দিনে আরও অনেক বেশি স্মার্টফোন কোটিং করতে পারবেন। এই মেশিনটি আপনি অতি সহজেই ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট থেকে ক্রয় করতে পারবেন।

See also  বিনিয়োগ শুধু একবার, চাহিদা রয়েছে সর্বত্র ও আয় হবে লক্ষাধিক - Small business ideas

প্রয়োজনীয় কাঁচামাল: এই ব্যবসার জন্য প্রধান রূপে দুই ধরনের কাঁচামাল প্রয়োজন। প্রথমটি হল মোবাইল ক্লিনিং লিকুইড এবং দ্বিতীয় টি হল ন্যানো কোটিং লিকুইড। মোবাইল ক্লিনিং লিকুইড প্রতি পাঁচ লিটার ৬৫০ টাকায় কিনতে পারেন এবং ন্যানো কোটিং লিকুইড এর জন্য আপনার খরচ হবে ৩,৭০০ থেকে ৪,০০০ টাকা পর্যন্ত।

স্মার্টফোনে ন্যানো কোটিং পদ্ধতি

আপনি ন্যানো কোটিং মেশিনের সাহায্যে যে কোনও স্মার্টফোন বা মোবাইল ঠিক করতে পারেন। এজন্য প্রথমত, মোবাইল ক্লিনিং লিকুইডের সাহায্যে মোবাইল পরিষ্কার করতে হবে এবং মোবাইলের ভিতরে থাকা সিম কার্ড বা মেমোরি কার্ড খুলে রাখতে হবে। এরপর মেশিনে লাগানো ভ্যাকুয়াম পাইপের সাহায্যে মোবাইলের চার্জিং পার্টের সহ সব ছিদ্রগুলি ভ্যাকুয়াম পাইপ দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার করতে হবে।

ভালোভাবে পরিষ্কার হয়ে গেলে মোবাইলটিকে ন্যানো কোটিং মেশিনে রাখতে হবে এবং মেশিনে লাগানো কাপে 3ml ন্যানো কোটিং লিকুইড ঢেলে মেশিনটি বন্ধ করে দিতে হবে। তারপরে ন্যানো কোটিং বোতামটি চালু করতে হবে, যাতে কাপে রাখা আবরণের তরলটি বাষ্পে পরিণত হতে শুরু করে এবং মোবাইলে প্রলেপ দেওয়া শুরু করে। এখন 5 মিনিটের মধ্যে মোবাইলে প্রবেশ করা সমস্ত জল বা তরল পরিষ্কার হয়ে যাবে। পরবর্তী ধাপে, মোবাইলটি মেশিনে লাগানো ড্রায়ারে রাখতে হবে এবং ২ মিনিটের জন্য শুকিয়ে নিতে হবে এখন আপনার মোবাইলটি সম্পূর্ণ ঠিক হয়ে যাবে।

এই ব্যবসা শুরু করতে কত খরচ?

এই ন্যানো কোটিং মেশিন কিনা বাবদ আপনার খরচ হতে পারে প্রায় ৩৫,০০০ টাকা। এখন আপনার প্রয়োজন একটি জায়গা। তাই, আপনি যদি শহরে প্রতি মাসে ১০,০০০ টাকায় একটি জায়গা নেন, তাহলে আপনাকে ৩ মাসের টাকা প্রথমেই জমা করতে হবে। এজন্য আপনার খরচ পড়বে ৩০,০০০ টাকা পর্যন্ত। এই জায়গাটি সম্পূর্ণরূপে আসবাবপত্র দিয়ে সাজিয়ে তুলতে আপনার খরচ হবে প্রায় ২০,০০০-২৫,০০০ টাকা মতো। এর পাশাপাশি আপনাকে সর্বনিম্ন ১৫,০০০ টাকার কাঁচামাল কিনতে হবে এবং স্বচ্ছলভাবে ব্যবসাটি কার্যকর করে তুলতে কমপক্ষে ২৫,০০০ টাকা রাখতে হবে নিজের কাছে। এই ব্যবসা শুরু করতে আপনার কমপক্ষে ১,৪০,০০০ টাকা থেকে ১,৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে।

See also  সবার প্রথমে শুরু করুন এই নতুন ব্যবসা, প্রতিদিন লাভ হবে 2000 থেকে 3000 টাকা পর্যন্ত - Small Business ideas

এই ব্যবসা থেকে আয়ের পরিমাণ

বর্তমান সময়ে মোবাইলের ন্যানোকোটিন এর জন্য যেকোনো তরল বাবদ খরচ হয়ে থাকে মাত্র ২০ থেকে ২৫ টাকা মত। কিন্তু প্রত্যেক দোকানদার স্মার্টফোনের ন্যানো কোটিং করানোর জন্য সর্বনিম্ন চার্জ নিয়ে থাকেন ১০০ – ২০০ টাকা পর্যন্ত। আপনি একজন ব্যবসায়ী হিসেবে কোন স্মার্টফোন ন্যানো কোটিং করার জন্য যদি সর্বনিম্ন চার্জ নিয়ে থাকেন ১৫০ টাকা এবং আপনার খরচ বাবদ যদি ২০ টাকা পরে এই প্রক্রিয়া থেকে নির্দিষ্ট ১টি স্মার্টফোনের উপর আপনি লাভ রাখতে পারবেন ১৩০ টাকা । এখন আপনি যদি সারাদিনে ১৫ জন কাস্টমার পেয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনার লাভের পরিমাণ ১,৯৫০ টাকায় দাঁড়ায়। অর্থাৎ আপনি অতি সহজেই এই ব্যবসাটি থেকে প্রতিমাসে ৫০,০০০-৬০,০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারেন। এখন গ্রাহকের পরিমাণ যত বৃদ্ধি পাবে আপনার আয়ের পরিমানও ততটাই বৃদ্ধি পাবে। আপনি এর থেকে বেশি আয় করতে পারবেন তবে আপনি মাসে কমপক্ষে 50 হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Join Our WhatsApp Group!